আঁধারে অরুণিমা

আঁধারে অরুণিমা

মা যে দশ মাস

মা যে দশ মাস দশ দিন গর্ভে ধরিয়া

করেছেন আমাদের ঋণী
গায়ের চামড়া কাটিয়া দিলেও

সেই ঋণ শোধ হবেনা জানি, মা।

কতদিন দেখিনা মায়ের ঐ চাঁদমুখ কষ্টে হৃদয় পুড়ে
পিঠা পুলি বানাইয়া পায়েসও রান্ধিয়া মা প্রতীক্ষা করে
হাজারো বাস্ততা অবসর পাই কোথা
তাইতো হয়না যাওয়া গায়ের বাড়িতে।


চিঠি লিখে ছোটবোন টেলিফোন করে

অসুখটা যাচ্ছে মায়ের বেড়ে
ভীষণ জ্বরের ঘোরে মা কাইন্দা বলে

ভুইলা কি গেছিস মোরে

কতো ছেলে বাড়ি যায় আমার না কাজ ফুরায়

যাবো বলি তবুও বাড়ি যাওয়া রে ।

হঠাৎও একদিন রাত দুপুরে একটা খবর এল
সবকিছুই আছে আগেরই মত,মা হারিয়ে গেল
এখন আর পথ চাইয়া থাকে না কেউ বসিয়া
তাইতো কষ্টে হৃদয় গোমরে মরে
মা গো... মা গো... মা গো... দুঃখিনী মা।

 

কথা সুর ও শিল্পী: আমিরুল মোমেনিন মানিক

ইয়া সাইয়্যেদী

ইয়া সাইয়্যেদী ইশফালানা

ইয়া সাইয়্যেদী ইশফালানা

আল্লাহ্ আল্লাহ্ আল্লাহ্ আল্লাহ্ 

আল্লাহ্ আল্লাহ্ সুবহানাল্লাহ্

আল্লাহ্ আল্লাহ্ আল্লাহু আকবার 

আল্লাহ্ আল্লাহ্ আল্লাহ্ আল্লাহ্ আল্লাহ্ আল্লাহ্ আল্লাহ্

আল্লাহ্ আল্লাহ্ আল্লাহু আকবার ।

 

ইন্নালতিয়া রিহাসসবাহ্

ইয়াওমান ইলাহ্ আরদিল হারাম

বাল্লিগ সালামি রওদতান

ফিহান্নাবিয়ুল মুহতারাম ।

 

বালাগালউলা বিকামালিহি

কাসাফাদ্দুজা বিজামালিহী

হাসনাত জামিউখি সলিহি

সাল্লু আলাইহি ওয়ালিহি।

 

আমিও কি তবো উম্মাত নহে

হিয়া পেরেশান তোমার বিরহে

আনেক সাগর তোমাতে হারায়

অনেক আকাশ দুহাত বাড়ায় ।

 

দিয়েছো কেবল চাওনি কিছু

ভেবেছো সমান উচু কি নিচু

ওগো প্রিয়তম প্রেম দাও কিছু

না হয় তোমার ছাড়বো না পিছু।

 

কথা: মতিউর রহমান মল্লিক

 

আমি কোরানের সুর

আমি কোরানের সুর মাঝে শুনেছি যে নাম
আজানের সুর মাঝেও শুনেছি সে নাম।
ও নাম শুনেছি আমি, আমার হৃদয়
হে রাসুল, নবীজি তোমায়
হে রাসুল, নবীজি তোমায়।

ও নামে এত জাদু, এত মধুময়
ও নাম নিয়েই ফুল সুরভী ছড়ায়,
ও নামের সুর তুলে শুধু আমি চাই
হে রাসুল, নবীজি তোমায়
হে রাসুল, নবীজি তোমায়।

আরশের বুকে লেখা ও মধুর নাম
তামাম মানবকুল জানায় সালাম,
ব্যাথিত মানবতা খুজেঁ ফেরে হায়
হে রাসুল, নবীজি তোমায়
হে রাসুল, নবীজি তোমায়।

আমি কোরানের সুর মাঝে শুনেছি যে নাম
আজানের সুর মাঝেও শুনেছি সে নাম।
ও নাম শুনেছি আমি, আমার হৃদয়
হে রাসুল, নবীজি তোমায়
হে রাসুল, নবীজি তোমায়।

 

কথা ও সূর : আব্দুস সালাম

শিল্পী : নওশাদ মাহফুজ

সে কোন বন্ধু

সে কোন বন্ধু বল বেশী বিশ্বস্ত
কার কাছে মন খুলে দেওয়া যায়
কার কাছে সব কথা বলা যায়
হওয়া যায় বেশী আশ্বস্ত
তার নাম আহমদ বড় বিশ্বস্ত।

 

যে জন কখনো ব্যাথা দিতে জানেনা
যে জন কেবলই মুছে দেয় বেদনা
হৃদয়ের হাহাকার আপন করে নিতে আর
কার বুক এত প্রশ্বস্ত
তার নাম আহমদ বড় বিশ্বস্ত।

 

মহানবী বলে তারে কেউ বা ডাকে
আমি ডাকি প্রিয়তম
সে আমার ধ্যান ভালাবাসা প্রেম
মধুময় মনোহর স্বপ্ন সমর

 

যে জন করুণার অনুপম উপমা
যার মত মরমী/দরদী কোথায় আর মিলেনা
জীবনের আঙ্গিনায় আবাদ করে দিতে আর
কার বুক এত প্রশ্বস্ত
তার নাম আহমদ বড় বিশ্বস্ত।

 

কথা ও সুর: মতিউর রহমান মল্লিক

 

সে কোন বন্ধু

সে কোন বন্ধু বল বেশী বিশ্বস্ত
কার কাছে মন খুলে দেওয়া যায়
কার কাছে সব কথা বলা যায়
হওয়া যায় বেশী আশ্বস্ত
তার নাম আহমদ বড় বিশ্বস্ত।

 

যে জন কখনো ব্যাথা দিতে জানেনা
যে জন কেবলই মুছে দেয় বেদনা
হৃদয়ের হাহাকার আপন করে নিতে আর
কার বুক এত প্রশ্বস্ত
তার নাম আহমদ বড় বিশ্বস্ত।

 

মহানবী বলে তারে কেউ বা ডাকে
আমি ডাকি প্রিয়তম
সে আমার ধ্যান ভালাবাসা প্রেম
মধুময় মনোহর স্বপ্ন সমর

 

যে জন করুণার অনুপম উপমা
যার মত মরমী/দরদী কোথায় আর মিলেনা
জীবনের আঙ্গিনায় আবাদ করে দিতে আর
কার বুক এত প্রশ্বস্ত
তার নাম আহমদ বড় বিশ্বস্ত।

 

কথা ও সুর: মতিউর রহমান মল্লিক

সে কোন বন্ধু

সে কোন বন্ধু বল বেশী বিশ্বস্ত
কার কাছে মন খুলে দেওয়া যায়
কার কাছে সব কথা বলা যায়
হওয়া যায় বেশী আশ্বস্ত
তার নাম আহমদ বড় বিশ্বস্ত।

 

যে জন কখনো ব্যাথা দিতে জানেনা
যে জন কেবলই মুছে দেয় বেদনা
হৃদয়ের হাহাকার আপন করে নিতে আর
কার বুক এত প্রশ্বস্ত
তার নাম আহমদ বড় বিশ্বস্ত।

 

মহানবী বলে তারে কেউ বা ডাকে
আমি ডাকি প্রিয়তম
সে আমার ধ্যান ভালাবাসা প্রেম
মধুময় মনোহর স্বপ্ন সমর

 

যে জন করুণার অনুপম উপমা
যার মত মরমী/দরদী কোথায় আর মিলেনা
জীবনের আঙ্গিনায় আবাদ করে দিতে আর
কার বুক এত প্রশ্বস্ত
তার নাম আহমদ বড় বিশ্বস্ত।

 

কথা ও সুর: মতিউর রহমান মল্লিক

 

সুন্নাত নয় শুধু

সুন্নাত নয় শুধু দাওয়াতের মেহমান 
সুন্নাত নয় শুধু খাওয়া শেষে মধুপান
আরও কিছু সুন্নাত আছে তুমি জান কি?
জানলেও জীবনে কখনো তা মান কি?

সুন্নাত শুধু নয় মজলুম সহায়ক 
সুন্নাত ওহুদে জালিমের প্রতিরোধ
সুন্নাত শুধু নয় নির্জন ধ্যানে যাওয়া
আরও সুন্নাত হল পাথরের আঘাত খাওয়া
মুহাব্বতে তার সুদিনের সাথী তুমি
দুর্দিনেও তার পাশে থাক কি?

সুন্নাত কোরআনের সমাজ বিনির্মাণে
বৈরী সকল পথ মাড়িয়ে চলা
সুন্নাত দাওয়াতে দীনের পাশাপাশি 
ইসলাম রক্ষায় হাতে তলোয়ার তোলা

সুন্নাত শুধু নয় নমনীয় আলাপন 
সুন্নাত প্রয়োজনে হুঙ্কার গর্জন
সুন্নাত শুধু নয় মেষ চরাতে যাওয়া
আরও সুন্নাত হল রাষ্ট্রনায়ক হওয়া
মুহাব্বতে তার খালিদ-ওমর-আলী
আবুবকরের মত পাশে থাক কি??

 

কথা ও সুর: মাহ্ফুজ বিল্লাহ্ শাহী

 

 

পুণ্যভূমি

এ দেশে আযান শুনে সূর্য ওঠে শহর গ্রামে
এ দেশে আযান শুনে সূর্য ডোবে সন্ধ্যা নামে
এ দেশে সকল কাজে সবাই বলে বিসমিল্লাহ
এ দেশে ভালো কিছু দেখে শুনে হাসি মুখে
সবাই বলে- মা শা আল্লাহ
সুবহান আল্লাহ্‌।।
-
এ দেশে পরস্পরে দেখা হলে দেয় সালাম
এ দেশে আম জনতার হৃদয় জুড়ে পাক কালাম
এ দেশে খারাপ শুনে সর্বজনে সর্বক্ষণে
দোয়া পড়ে- ইন্না লিল্লাহ
ইন্না লিল্লাহ।।
-
এ দেশের বাতাস থেকে যায় শোনা যায়
আল্লাহু আকবার
এ দেশের আকাশ থেকে বৃষ্টি ঝরে
নাম নিয়ে আল্লার
এ দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি এক
শ্রেষ্ঠ উপমা
পৃথিবীর অন্য কোথাও নেই তো এমন
শান্তি সুষমা।। 
-
তিতুমীর শাহজালালের শাহপরানের
কদম চুমি
'লা-শরীক' উড়ল নিশান, জাগল নতুন
পুণ্যভূমি।
এ দেশে আনলো সকাল শাহ আমানত শাহমাখদুম
খানজাহান ও শরীয়তুল্লাহ
সুবহান আল্লাহ্‌।।


কথা, সুর ও সঙ্গীত: মাহফুজ বিল্লাহ শাহী

সেরাদের সেরা “থিম সং”

জাতীয় সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা সেরাদের সেরা “থিম সং”।

গান: স্বাপ্নিক নাবিকেরা

কথা: ড. মাহফুজুর রহমান আখন্দ

সুর: আমিরুল মোমেনীন মানিক

 

 

থিমসং: সেরাদের সেরা

 

স্বাপ্নিক নাবিকেরা বিশ্বাসী পদভারে চলো

সেরাদের সেরা হয়ে বাংলার বুক জুড়ে

বিজয়ের সুরে কথা বলো

 

লাল সবুজের দেশে গান সুর কবিতার টানে

সেরাদের সেরা হয়ে সৃষ্টির উল্লাসে

মুক্তির দিন আনি গানে।

 

বিশ্বাসে- গান সুরে আনবো সকাল

কবিতার উপমাতে স্বপ্নের দিন

নাটকের অভিনয়ে জীবনের গান

আমাদের বুকজুড়ে স্বপ্ন রঙিন

মুক্তির মশাল জ্বেলে

চলো খুঁজি একসাথে জীবনের মানে।

 

একুশের চেতনাকে বক্ষে রাখি

পতাকার রঙে রঙে স্বপ্ন উড়াই

শহীদের খুনরাঙা দেখানো পথে

হাসিমুখে একমাথে জীবন বিলাই

বিজয়ের নিশান হাতে

মঞ্জিলে যাই চলো হৃদয়ের টানে।

ছয়টি ঋতুর খেলা

গান: ছয়টি ঋতুর খেলা
কথা: মতিউর রহমান মল্লিক
সুরঃ মাহফুজ বিল্লাহ শাহী

 

কোন দেশেতে পাবিরে তুই

ছয়টি ঋতুর খেলা
ও ও ও ও ও ও- - - - - হো হো হো
গ্রীষ্ম বর্ষা শরৎ শেষে
হেমন্ত শীত বসন্তেরই মেলা
সে আমার এই বাংলাদেশই
সজিব সুজলা শষ্য সুফলা
মন মাতানো প্রাণ জুড়ানো
দেশ চির শ্যামলা রে ॥

 

বুকের ভেতর লুকিয়ে রাখে
লতিয়ে থাকা হাজার নিবিড় নদী
জারি সারি ভাটিয়ালীর
সেই নদীরা বয়রে নিরবধী
মাঝ দরিয়ায় হাল ঘুরিয়ে
মন মাঝিরা পাল উড়িয়ে
দিক হতে দিক দিগন্তে যায়
ভাসিয়ে সুখের ভেলা ॥

 

সকাল নামে গাছের পাতায়
শিশির কনা ধুয়ে ধুয়ে ঐ
ছড়িয়ে পড়ে আলোর পাখি
ঘর বাড়ি মাঠ হৃদয় ছুয়ে ঐ
বয়রে হাওয়া নীড় নাচিয়ে
ফুল ফসলের ক্ষেত মাতিয়ে
সুনীল আকাশ গান গেয়ে যায়
রাঙিয়ে গোধুল বেলা ॥
 
বাঁশ বকুলের এ দেশ আমার
তাল তমালের এ দেশ আমার ওগো
জগত সেরা এ দেশ আমার
একটি মহান সবুজ খামার ওগো
তেপান্তরের মাঠ পেরিয়ে
হিজলতলীর ঘাট পেরিয়ে
ঝড়ের আকাশ নেয় উড়িয়ে
খড়ের বিচঞ্চলা ॥

গানের কথায় ওগো তুমি রবে

 

আল্লাহু আল্লাহু আল্লাহু আল্লাহু

আল্লাহু আল্লাহু আল্লাহু আল্লাহু

 

গানের কথায় ওগো তুমি রবে

গানের সুরেও তুমি রবে

তুমি ছাড়া হবে না লিখা কোন গান

তুমি ছাড়া জমে না সুরেরই টান

যতগান যতসুর আছে তুমিময়

কবুল করো তুমি ওগো দয়াময় ।

 

যে গানে থাকে না তোমার কথা

যে গানে থাকে না প্রেম রাসূলের

স্বদেশের কথা যেই গানে থাকে না

থাকে না যে গানে কথা জীবনের

সেই গান সে সুরের এটুকু সুধা

আমার কণ্ঠে যেনো কভু না রয় ।

 

যে গানে থাকেনা মানবতা

আহ্বান থাকেনা দ্বীনের পথে

যে গানে জিহাদের কথা থাকেনা

নিয়ে যায় আযাবের অগ্নিপথে

সেই গান কথনও যেন না হয়

যতগান হবে শুধু ওগো দয়াময় ।

 

 

কথা ও সুর মাহমুদ ফয়সাল

যে মা আমায় ছোট্ট থেকে - মফিজুল ইসলাম ইমন - সেরা শিশু কণ্ঠ

যে মা আমায় ছোট্ট থেকে

কথা ও সুর: 

শিল্পী: মফিজুল ইসলাম ইমন 

সেরা শিশু কণ্ঠ-২০১৫

 

 

যে মা আমায় ছোট্ট থেকে
মায়ার জালে বন্দি রেখে
করেছে পালন
হে প্রভু তুমি ও তারে
তোমার আরশ ছায়া নীড়ে
করিও লালন
মাকে করিও লালন।

 

যে মা সদা আমার পাশে
সুখে দুঃখে থাকতো বসে
সে মা আজি আমায় ছেড়ে
চলে গেছে তোমার কাছে

হে প্রভু তুলেছি হাত
তুমি তারে দাওগো নাযাত

করে নাও আপন।

হে প্রভু তুমি ও তারে...

 

আমার দুঃখে কাঁদতো যে মা মলিন করে মুখ
দু হাত তুলে তোমার কাছে চাইতো আমার সুখ।

 

যে মা ছিল সবচে আপন
সে ছাড়া আজ শুন‍্য ভূবন
আসবে না মা ফিরে কভু
কেঁদে যতই ভাসাই নয়ন

হে প্রভু তুলেছি  হাত
তুমি তারে দাওগো নাযাত
করে নাও আপন।

হে প্রভু তুমি ও তারে...

মিথ্যাবাদী - নীল প্রজাপতি

 

কথা: মতিউর রহমান মল্লিক
সুর: মশিউর রহমান

 

মিথ্যাবাদীর বন্ধু হয়ো না

হয়ো না সঙ্গী তার

তাহলে হায়রে তোমার জীবন

হয়ে যাবে ছারখার ------

 

সদাই মিথ্যা বলতে পারে যে

সব অন্যায় করতে পারে সে

ধীরে ধীরে তার শেষ হয়ে যায় লেশটুকু লজ্জার

 

বাঘে খেয়ে গেলে বাঘে খেয়ে গেলো বলতো সে এক রাখাল

চিৎকার শুনে আসতো চাষিরা মিথ্যায় হতো নাকাল

 

তারপর বাঘ আসলো যেদিন

কেউতো এগিয়ে এলো না সেদিন

বাঘ খেল তারে শাস্তি পেল সে বানিয়ে মিথ্যা বলার

 

 সকল পাপের উৎস মিথ্যা

সব খারাপের মূল

মিথ্যবাদীরা নিশ্চিতভাবে

হারায় যে দুই কূল -----

 

একটি মিথ্যা বললে তখন

হাজার বলার হয় প্রয়োজন

এইভাবে শেষে শুরু হয়ে যায় মিথ্যার কারবার