গানের স্বরলিপি

ছয়টি ঋতুর খেলা

নীল প্রজাপতি - সসাস

গান: ছয়টি ঋতুর খেলা
কথা: মতিউর রহমান মল্লিক
সুরঃ মাহফুজ বিল্লাহ শাহী

 

কোন দেশেতে পাবিরে তুই

ছয়টি ঋতুর খেলা
ও ও ও ও ও ও- - - - - হো হো হো
গ্রীষ্ম বর্ষা শরৎ শেষে
হেমন্ত শীত বসন্তেরই মেলা
সে আমার এই বাংলাদেশই
সজিব সুজলা শষ্য সুফলা
মন মাতানো প্রাণ জুড়ানো
দেশ চির শ্যামলা রে ॥

 

বুকের ভেতর লুকিয়ে রাখে
লতিয়ে থাকা হাজার নিবিড় নদী
জারি সারি ভাটিয়ালীর
সেই নদীরা বয়রে নিরবধী
মাঝ দরিয়ায় হাল ঘুরিয়ে
মন মাঝিরা পাল উড়িয়ে
দিক হতে দিক দিগন্তে যায়
ভাসিয়ে সুখের ভেলা ॥

 

সকাল নামে গাছের পাতায়
শিশির কনা ধুয়ে ধুয়ে ঐ
ছড়িয়ে পড়ে আলোর পাখি
ঘর বাড়ি মাঠ হৃদয় ছুয়ে ঐ
বয়রে হাওয়া নীড় নাচিয়ে
ফুল ফসলের ক্ষেত মাতিয়ে
সুনীল আকাশ গান গেয়ে যায়
রাঙিয়ে গোধুল বেলা ॥
 
বাঁশ বকুলের এ দেশ আমার
তাল তমালের এ দেশ আমার ওগো
জগত সেরা এ দেশ আমার
একটি মহান সবুজ খামার ওগো
তেপান্তরের মাঠ পেরিয়ে
হিজলতলীর ঘাট পেরিয়ে
ঝড়ের আকাশ নেয় উড়িয়ে
খড়ের বিচঞ্চলা ॥

ঈদগাহে যাই চল

হেরাররশ্মি শিল্পীগোষ্ঠী - সসাস

 

আয় কে যাবি বল
ঈদগাহে যাই চল
সুরমা আতর সুবাস মেখে
আল্লাহ ধ্বনি বলে।

খুশির পরাগ মেখে
নতুন জামা পড়ে
ঈদের মাঠে যাব সবাই
মাকে সালাম করে
তাকবীরে তাকবীরে সবাই
আনবো খুশির ঢল।

ধনী গরীব মিলে
দুম্বা ছাগল দিয়ে
কোরবানি করি সবাই মিলে
আল্লার নাম নিয়ে
করবো দোয়া দ্বীনের পথে
থাকতে অবিচল।

 

কথা : শেখ নজরুল

সুর: শহীদুল্লাৈহ্ হাদী

গানের কথায় ওগো তুমি রবে

স্বরুপ সাহিত্য সাংস্কৃতিক সংসদ

 

আল্লাহু আল্লাহু আল্লাহু আল্লাহু

আল্লাহু আল্লাহু আল্লাহু আল্লাহু

 

গানের কথায় ওগো তুমি রবে

গানের সুরেও তুমি রবে

তুমি ছাড়া হবে না লিখা কোন গান

তুমি ছাড়া জমে না সুরেরই টান

যতগান যতসুর আছে তুমিময়

কবুল করো তুমি ওগো দয়াময় ।

 

যে গানে থাকে না তোমার কথা

যে গানে থাকে না প্রেম রাসূলের

স্বদেশের কথা যেই গানে থাকে না

থাকে না যে গানে কথা জীবনের

সেই গান সে সুরের এটুকু সুধা

আমার কণ্ঠে যেনো কভু না রয় ।

 

যে গানে থাকেনা মানবতা

আহ্বান থাকেনা দ্বীনের পথে

যে গানে জিহাদের কথা থাকেনা

নিয়ে যায় আযাবের অগ্নিপথে

সেই গান কথনও যেন না হয়

যতগান হবে শুধু ওগো দয়াময় ।

 

 

কথা ও সুর মাহমুদ ফয়সাল

কখন কে যে হারিয়ে

পানসি - সাইমুম শিল্পীগোষ্ঠী


কখন কে যে হারিয়ে যাবা 
কেউ তো জানবে না রে মানুষ
এই আছো এই নেই তবুও 
কিছুই মানলি না রে মানুষ ॥

 

পয়সা মারো মারো টাকা
পরের তহবিল করে ফাঁকা
সুদ খাও ঘুষ খাও জন্মের খাওয়া
যার কাছে যা যায় রে পাওয়া
ইচ্ছে করে লম্বা লোভের 
লাগাম টানলি না রে মানুষ ॥

 

যা করো তার জবাব দেয়ার
ভাবনা ভাবলি না 
পাপের অনুতাপে হায় রে 
একটু কাঁদলি না।

 

লাজ শরমের খেয়ে মাথা
দাও যে ধোঁকা যথাতথা
ছলবল কলবল কল কৌশল
সবটুক মাখন নাও রে তুলে
জেনে শুনে ধ্বংসের বুকে 
আঘাত হানলি না রে মানুষ ॥

 

কথা: মতিউর রহমান মল্লিক
সুর: মশিউর রহমান

সবুজ চাদরে ঢাকা

পানসি - সাইমুম শিল্পীগোষ্ঠী


সবুজ চাদরে ঢাকা রংধনু রঙে আঁকা 
এ আমার রূপসী বাংলাদেশ
হাজার নদীর ঐ কলকল কলতানে 
মুখরিত সবুজের রূপ অনিশেষ 
বাংলাদেশ বাংলাদেশ 
আমার জন্মভূমি বাংলাদেশ ॥

 

আঁকা বাঁকা পথে নদী যায় ছুটে যায়
পানসি নায়ের মাঝি ভাটিয়ালি গায়
দখিনা পবন তালে কাশফুল দুলে দুলে
ছড়ায় রূপের আভা মুগ্ধ আবেশ ॥

 

ছায়া ঢাকা মেঠো পথে রাখালিয়া সুর  
উদাসী দুপুর বেলা আহা কী মধুর 
কাজল দীঘির জলে শুভ্র কমল দোলে
সারি সারি মহুয়ার রূপ অনিশেষ ॥

 

কথা ও সুর: মতিউর রহমান খালেদ 

যেদিন মায়ার বাঁধন

পানসি - সাইমুম শিল্পীগোষ্ঠী


যেদিন মায়ার বাঁধন ছিন্ন করে
যাব ওপার ভেলায়
সে যে বেদনারই দিন বিরহেরই দিন
থাকবো না এ মেলায় ॥

 

কত কথাগুলো নাড়া দেবে মনে
কত স্মৃতিগুলো জেগে ওঠে ক্ষণে ক্ষণে
ভুলে ভুলে কত ব্যথা দিয়েছি
সব ব্যথা ভুলে ক্ষমা করো আমায় ॥

 

সাদা কাফনে জড়ায়ে নিয়ে যাবে 
সেদিন অন্ধকারে তুমি কেমনে রবে
কারো হৃদয়ে যদি ব্যথা দিয়ে থাকি
সব ব্যথা ভুলে ক্ষমা করো আমায় ॥

 

কথা ও সুর: ওবায়দুল্লাহ তারেক