গানের স্বরলিপি

যতদূর চোখ যায়

হেরাররশ্মি শিল্পীগোষ্ঠী

যতদূর চোখ যায় ঐ দূর সীমানায়
চোখ দুটি ভরে যায় সবুজের বন্যায় ।

 

নীল আকাশ হেটে হেটে থেমে গেছে যেখানে
মনে হয় আমার দেশের সীমানাটা সেখানে
ভাবনা আমার দেশকে ঘিরে সকাল দুপুর সন্ধ্যায় ।

 

নদীর ঢেউয়ে পাল তুলে মাঝি বেয়ে যায়
মনের সুখে কন্ঠ ছেড়ে ভাটিয়ালি গান গায়
কল্প কথায় গল্প বলে দুঃখ হাসি কান্নায় ।

 

কথা : আমিরুল ইসলাম
সুর : মশিউর রহমান
 

এই দুনিয়ার বন্ধু

হেরাররশ্মি শিল্পীগোষ্ঠী

এই দুনিয়ার বন্ধু স্বজন যত আছ শোন
ইরাকেতে আমরা যারা শিশু
কেমন আছি তাকি তোমরা জানো ।

 

এখন মোদের পথে না হয় জেল খানাতে ঘর
আব্বু-আম্মু আছে কি নেই পাইনা সে খবর
খেতে পাইনা পড়তে পাইনা পাইনা আদর কোন ।


মার্কিনেরা চায়না মোরা যত শিশু আছি
ইরাকেতে হেসে খেলে একটা দিনও বাঁচি
ইসরাইলরা চায়না মোরা যত শিশু আছি
ফিলিস্তিনিতে হেসে খেলে একটা দিনও বাঁচি ।


বোমার ঘায়ে হাত পা মোদের দেয় যে উড়িয়ে
 গ্রেনেট মেরে বক্ষ মোদের দেয় যে গুড়িয়ে
আমরা শিশু তবু তাতে পাইনা ক্ষমা কোন ।


কথা ও সুর : নাঈম আল ইসলাম
 

 

সবুজের আলপনা দেখে

হেরাররশ্মি শিল্পীগোষ্ঠী

সবুজের আলপনা দেখে মনে হয়
তোমারি ইশারা রয়েছে সেথায়
গাঙচিল খালবিল দেখে মনে হয়
তোমারি ইশারা রয়েছে সেথায় ।

 

ধানক্ষেতে বাতাসেরা দোলায় পাখা
কৃষকের বুকে তাই স্বপ্ন আঁকা
কৃষাণের বেঁচে থাকা দেখে মনে হয় ।

 

সন্ধ্যার জোঁনাকিরা আলোক জ্বেলে
আঁধারের পেটে আনন্দে খেলে
তারাদের হাসি মুখ দেখে মনে হয় ।

 

কথা : হোসাইন আল মামুন
সুর : মশিউর রহমান
 

আমার মায়ের পদ

হেরাররশ্মি শিল্পীগোষ্ঠী

আমার মায়ের পদ তলে
দুনিয়া আখেরাত সুখে দুঃখে সেই মা আজও
বাড়িয়ে দেন দুটি হাত ।

 

কত সুর কত গান হারিয়ে যায়
হৃদয় বীণার তার ছিড়ে ছিড়ে যায়
তখনই মায়ের মুখে হতাশার পাখি ডানা ঝাপটায়
আসে আঁধারের রাত ।

 

কত সুখ কত দুঃখ বুকে দোলা দেয়
হৃদয় জালনা গুলো খুলে খুলে দেয়
তখনই মায়ের মুখে প্রীতিময় ছবি প্রাণ খুঁজে নেয়
জাগে সোনালি প্রভাত ।


কথা ও সুর : আমিরুল মোমেনীন মানিক
 

জনম জনম ধরে

হেরাররশ্মি শিল্পীগোষ্ঠী

জনম জনম ধরে খুঁজব তোমায়
ভালই বলুক না হয় মন্দ বলুক লোকে
কি আসে যায় বল ।

 

চাইনা ভোগের স্বাদ এই দুনিয়ায়
 যেখানে মানব প্রেম মমতা হারায়
দিন শেষে রাত আসে ভোর হয়ে যায় ।

 

আশার আলোয় থাকি চেয়ে সারাক্ষন
হৃদয় ব্যথায় ভরা বোঝেনা এ মন
সুন্দর ব্যাকুলতা ছুঁয়ে ছুঁয়ে যায় ।

 

ফোটে ফুল দোল দিয়ে গন্ধ ছঁড়ায়
অবশেষে পড়ে থাকে স্মৃতির খাতায়
 কে দিল আঁকিয়ে বল কার মহিমায় ।

 

কথা ও সুর : মালিক আবদুল লতিফ
 

একদিন তিতুর ঘোড়ার

হেরাররশ্মি শিল্পীগোষ্ঠী

একদিন তিতুর ঘোড়ার খুঁড়ে
দৃপ্ত শপথ করে জেগেছিল জনতা
সেই সব আজকে সোনালি হরফে লেখা স্মৃতির পাতায় ।

 

এখানে এখনও খুঁজি কোন তিতুমীর
যার ডাকে কেটে যাবে লক্ষ তিমির
এসো নতুন তিতুমীর সুশক্তি ভেঙে আনো নব বারতা ।

 

এ মাটির বুকে আছে সুদিনের খুন
 সেই খুন আজও পারে ছড়াতে আগুন
এসো যুগের মিনতি শুদ্ধ মননে আন নব বারতা ।

 

কথা ও সুর : আমিরুল মোমেনীন মানিক