গানের স্বরলিপি

কোন একদিন

তুমি সুন্দর ও প্রভু - সাইমুম শিল্পীগোষ্ঠী

কোন একদিন এ দেশের আকাশে 
কালেমার পতাকা দুলবে
সেদিন সবাই খোদায়ী বিধান পেয়ে 
দুঃখ বেদনা ভুলবে ।

 

সেদিন আর রবে না হাহাকার
অন্যায় জুলুম অবিচার
থাকবে না অনাচার দুর্নীতি কদাচার
সকলেই শান্তিতে থাকবে ।
 
একাকিনী রমণী নির্জন পথে যাবে 
কোনজন কটু কথা কবে না
কোনদিন পথে ঘাটে সম্পদের মোহে 
খুন আর রাহাজানি রবে না
সেই দিন আর নয় বেশি দূরে 
আর কিছু পথ গেলে মিলবে । 

 

অশান্তির কোপানলে মরিস না ধুঁকে ধুঁকে
আয় তোরা দিকে দিকে ছুটে আয়
যতদিন দূরে যাবে ততদিন পিছে রবে
শান্তি আসিতে এই দুনিয়ায়
খোদার আইন ছাড়া অন্য কিছুতে আর
মানুষের শান্তি না মিলবে । 

 

কথা ও সুর: লোকমান হাকিম

এসো এসো এসো

তুমি সুন্দর ও প্রভু - সাইমুম শিল্পীগোষ্ঠী

এসো এসো এসো এই পথে সব
এ যে কোরআনেরই পথ
কোরআনের কথা বলে আল্লাহর দল
এই দলে যারা চলে তারাই সফল
এই পথে এত বাধা ছিল না জানা
আল্লাহুম্মা ইয়াস্সিরলানা উমরানা ।

 

ইসলামী হুকুমাত চায় না যারা
কলুষতা অনাচার ছড়ায় তারা 
যতই যাতনা আসে সয়ে যায় অনায়াসে
ভয় নেই জীবনের দিতে জরিমানা । 

 

আল্লাহর বাণী এই পাক কোরআন
আমরা জীবন দিয়ে রাখি তার মান
আর নয় হানাহানি শান্তি যে চাই
সত্য ন্যয়ের কথা তাদের শোনাই
দুর্বল ভীরু নই গাজী বা শহীদ হই
জান্নাতে পেতে চাই শেষ ঠিকানা ।

 

কথা: খাদিজা আক্তার রেজায়ী
সুর: মশিউর রহমান
 

তোমার সাথে কার

ভোরের পাখিরা - সাইমুম শিল্পীগোষ্ঠী

তোমার সাথে কার তুলনা
কার গো তুমি সই
বর্ণমালার বই?


তোমার সাথে কার তুলনা 
কার সাথে যে মিল
ঐ আকাশের নীল?


তোমার সাথে কার তুলনা 
পায় না খুঁজে কেউ
সাগর জলে ঢেউ?


তোমার সাথে কার তুলনা
কার গো তুমি কথা
নাম কি স্বাধীনতা?


কথা: সাজজাদ হোসাইন খান
সুর: সাইফুল্লাহ মানছুর
 

আমার দেশের ঠিকানা

ভোরের পাখিরা - সাইমুম শিল্পীগোষ্ঠী

আমার দেশের ঠিকানা বন্ধু পাবে
ধীরে ধীরে বয়ে যাওয়া নদীর গানে
আরো পাবে ভালোবাসা ছড়িয়ে 
পাপড়ি মেলেছে ঐ শাপলা শালুক যেখানে ।


দেখবে রূপ তার শ্যামলী খোপায়
সাজিয়ে প্রাণের মেলা বটের ছায়ায়
নকশী কাঁথার বুকে বর্ণালী 
ছবি আঁকা যেখানে ।


শুনবে রুমঝুম ঝর্ণাধারায়
পাহাড়ী রূপসী কত গান গেয়ে যায়
পলাশ কৃষ্ণচূড়া জড়িয়ে 
হৃদয় থাকে যেখানে ।


কথা ও সুর: চৌধুরী আবদুল হালিম
 

তাঁর ভালবাসা যদি

ভোরের পাখিরা - সাইমুম শিল্পীগোষ্ঠী

তাঁর ভালবাসা যদি পেতে চাও
তবে মানুষেরে ভালবেসে যাও ।


প্রেমের পথে তারে পাবে চিরদিন
ভূখা নাঙ্গা অসহায় দুঃখী দীনহীন
তাদের মাঝে তাঁরে খুঁজে পাবে
মনের দুয়ার যদি খুলে দাও ।


তৃষিত জনে দিলে এক ফোটা জল
বাঁচে যদি তাতে কোন দুর্বল
আনন্দ স্রোতধারা যাবে বয়ে
মনের দুয়ার যদি খুলে দাও ।


কথা: হাসান আখতার
সুর: সাইফুল্লাহ মানছুর 

এক যে ছিল বীর

ভোরের পাখিরা - সাইমুম শিল্পীগোষ্ঠী

এক যে ছিল বীর নামটি তিতুমীর
বাঁশের লাঠি দিয়ে ভাঙতো সে জিঞ্জির ।


করতো লড়াই হেসে দেশকে ভালবেসে
রক্ত ঢেলে ঢেলে হোক না মরণ শেষে ।

 
বাপের ভিটা ঘর দেখ হাজার চর
দস্যু ডাকু মিলে সব করেছে পর ।


নিজের জমাজমি আরো দোকান খনি
এখন যেন সব বাঁশে রাখা মনি ।


ভাবতো বসে তিতু সোনার বরণ ঋতু
আনবো আবার কেড়ে এইটুকু নয় ভীতু ।

 
যেইবা বাঁশের ভার খুলল বাহুর দ্বার 
আগুন ঝরা রাতে কাঁপলো যেদিন রাত ।


দুর্গ বাঁশের ঘরে ভীষণ লড়ে লড়ে 
বীর সে তিতুমীর গোলাপ হয়ে লড়ে ।


শহীদ তিতুমীর আকাশ ছোঁয়া বীর
বাঁশের লাঠি দিয়ে ভাঙতো সে জিঞ্জির ।


কথা: সাজজাদ হোসাইন খান
সুর: সাইফুল্লাহ মানছুর